Preview
প্রশ্ন করুন
রিলেটেড কিছু বিষয়

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

( ৩ টি উত্তর আছে )

( ৮,৭০৪ বার দেখা হয়েছে)

আমির  

মহাগুরু

বারমাসি সবজির মধ্যে লাউ অন্যতম। কিন্তু লাউ মূলত শীতকালীন সবজি। লাউ দিয়ে মাছ মাংস সবই রান্না করা যায়। লাউয়ের খোসা দিয়ে বানানো যায় সুস্বাদু কাবাব। লাউয়ের কয়েক পদের রেসিপি লাউ চিংড়ি তরকারি উপকরণ : লাউ ছোট ছোট টুকরো করা অর্ধেক, চিংড়ি মাছ ২৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১ টেবিল-চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া অর্ধেক চা-চামচ, জিরা গুঁড়া, ১ চা-চামচ, কাঁচামরিচ আস্ত ৪/৫টি, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ, রসুন বাটা ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, তেল পরিমাণমত। প্রস্তুত প্রণালী : লাউ ধুয়ে টুকরো করে নিন। চিংড়ির খোসা ছাড়িয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। একটি ফ্রাইপ্যান বা কড়াইয়ে তেল গরম করে তাতে লাউ ছাড়া সব উপকরণ একসঙ্গে দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। এরপর ভুনা চিংড়িগুলো একটি বাটিতে তুলে রাখুন। তারপর ওই মসলায় লাউ দিয়ে আবার কষিয়ে ঢেকে রান্না করুন। লাউ সেদ্ধ হয়ে এলে তাতে ভুনা চিংড়ি, জিরা গুঁড়া, ধনেপাতা কুচি ও কাঁচামরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ চুলায় রেখে দিন। লাউ মাখা মাখা করে নামিয়ে পরিবেশন করুন লাউ চিংড়ি তরকারি। লাউ ভাজি উপকরণ : লাউ কুচি কুচি করে কেটে নিই (ছোট সাইজের লাউয়ের অর্ধেক)। পেঁয়াজ কুচি এক টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ৩-৪টা, ধনে গুঁড়ো আধা চা-চামচ, হলুদ সামান্য, আদা বাটা আধা চা-চামচ, ধনেপাতা ২ চা-চামচ, কালিজিরা আধা চা-চামচ, লবণ স্বাদমত, তেল পরিমাণমত। প্রণালী : প্রথমে কড়াইয়ে তেল দিয়ে গরম হলে এতে পেঁয়াজ কুচি ও কাঁচামরিচ ফালি দিয়ে দিই। এরপর পেঁয়াজ কুচি বাদামি রঙের হলে একে একে সব মসলা দিয়ে দিই। মসলা কষানো হলে এতে লাউ কুচি দিয়ে দিই। ভালোভাবে নেড়ে মসলা লাউয়ের সঙ্গে মিশে যাওয়ার পর ঢাকনা দিয়ে ঢেকে জ্বাল কমিয়ে দিই। দশ মিনিট এভাবে রাখার পর ধনেপাতা দিয়ে নেড়ে দুই মিনিট পর নামিয়ে ফেলি। লাউ দিয়ে গরুর মাংস উপকরণ : একটি মাঝারি লাউয়ের অর্ধেক, গরুর মাংস ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদা বাটা ১ চা-চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল-চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া ২ চা-চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা-চামচ, তেজপাতা ১টি, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা-চামচ, কাঁচামরিচ আস্ত ৪-৫টি, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, তেল ও পানি পরিমাণমত। প্রস্তুত প্রণালী : প্রথমে লাউয়ের খোসা ছাড়িয়ে ধুয়ে টুকরো করে কেটে নিন। গরুর মাংস ভালো করে ধুয়ে সব উপকরণ দিয়ে মাখিয়ে চুলায় দিয়ে কষিয়ে নিন। এরপর পানি দিয়ে ভুনা ভুনা করে রান্না করুন। (বাকিটা মন্তব্যতে দেওয়া হলো)

দীপ্তি  আমি শান্ত, সাম্য, আহ্লাদী, মিশুক, পরিপাটি, গোছালো, খুব নরম মনের একজন সাধারণ মানুষ :)

মহাগুরু

টাকি মাছ দিয়ে চিংড়ি মাছ  রান্না শহর ও গ্রামাঞ্চলের বাংলায় ভোজন রসিকদের জন্য খুব তৃপ্তির খাবার, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। শীতকালে কচি লাউয়ের সাথে চিংড়ি  মাছের এই প্রিপারেশন কিন্তু দারুন জমে যায়।

চলুন জেনে নেই এর রেসিপি-

লাউ দিয়ে চিংড়ি মাছ

উপকরনঃ–

  • চিংড়ি মাছ হাফ কেজি
  • একটা কচি লাউতেলএ
  • ক চামচ লাল মরিচ গুড়া
  • এক চামচ আদা বাটা
  • সামান্য হলুদ
  • লবন (পরিমান মত)
  • কাঁচা মরিচ
  • ধনিয়া পাতা
  • জিরা, তেজপাতা ফোড়নের জন্য
  • এক চামচ ঘি 

প্রনালী : 

  • লাউ ঝিরি ঝিরি করে কেটে নিতে হবে।
  • কড়াইতে তেল দিয়ে গরম করে তাতে হলুদ ও লবন মাখিয়ে মাছ ভেজে তুলে রাখুন।
  • এবার ঐ তেলে জিরা ও তেজপাতা ফোড়ন দিন।
  • এবার লাউ ঢেলে, তারপর একে একে মরিচগুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, লবন ও কাঁচা মরিচ দিয়ে কষিয়ে সামান্য পানি দিয়ে ঢাকনা দিয়ে কিছুক্ষন ঢেকে রাখতে হবে যতক্ষণ না মজে।
  • খুন্তি  দিয়ে নেড়ে নেড়ে দেখতে হবে লাউ পুরোপুরি সেদ্ধ হয়েছে কি না।
  • লাউ মজতে থাকবে। লাউয়ের পানি শুকিয়ে এলে প্রয়োজনে কিছু পানি দিতে পারেন। দাঁড়িয়ে দেখতে থাকুন। লাউ বেশী মজে গেলে আবার খেতে ভাল লাগবে না। আবার ঠিকভাবে সেদ্ধ না হলেও খেতে বাজে লাগবে।
  • এবার ভেজে রাখা চিংড়ি মাছ গুলো দিয়ে দিতে হবে। এবার ঢাকনা দিয়ে কিছুক্ষন রেখে উপর থেকে ঘি ছড়িয়ে দিয়ে মৃদু আঁচে কিছুক্ষন জ্বাল দিতে হবে।
  • মিনিট পাঁচেক আগুনে জ্বাল দিয়ে লবন দেখে নিন, না হলে দিন হলে বলুন ‘ওকে’। পরিমান মত ধনিয়া পাতা তরকারীর উপরে ছিটিয়ে দিয়ে দিন।
  • তারপর চুলা বন্ধ করে সারভিং ডিশে সাজিয়ে গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।

ব্যস হয়ে গেল ‘চিংড়ি মাছ দিয়ে লাউ রান্না’।

রুমানা খান (রুমু)  আমি আর আমার কার্টুন এ নিয়ে আমার পৃথিবী

গুরু

1লাউ চিংড়ি তরকারি উপকরণ : লাউ ছোট ছোট টুকরো করা অর্ধেক, চিংড়ি মাছ ২৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১ টেবিল-চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া অর্ধেক চা-চামচ, জিরা গুঁড়া, ১ চা-চামচ, কাঁচামরিচ আস্ত ৪/৫টি, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ, রসুন বাটা ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, তেল পরিমাণমত। প্রস্তুত প্রণালী : লাউ ধুয়ে টুকরো করে নিন। চিংড়ির খোসা ছাড়িয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। একটি ফ্রাইপ্যান বা কড়াইয়ে তেল গরম করে তাতে লাউ ছাড়া সব উপকরণ একসঙ্গে দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। এরপর ভুনা চিংড়িগুলো একটি বাটিতে তুলে রাখুন। তারপর ওই মসলায় লাউ দিয়ে আবার কষিয়ে ঢেকে রান্না করুন। লাউ সেদ্ধ হয়ে এলে তাতে ভুনা চিংড়ি, জিরা গুঁড়া, ধনেপাতা কুচি ও কাঁচামরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ চুলায় রেখে দিন। লাউ মাখা মাখা করে নামিয়ে পরিবেশন করুন লাউ চিংড়ি তরকারি। ২.লাউ ভাজি উপকরণ : লাউ কুচি কুচি করে কেটে নিই (ছোট সাইজের লাউয়ের অর্ধেক)। পেঁয়াজ কুচি এক টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ৩-৪টা, ধনে গুঁড়ো আধা চা-চামচ, হলুদ সামান্য, আদা বাটা আধা চা-চামচ, ধনেপাতা ২ চা-চামচ, কালিজিরা আধা চা-চামচ, লবণ স্বাদমত, তেল পরিমাণমত। প্রণালী : প্রথমে কড়াইয়ে তেল দিয়ে গরম হলে এতে পেঁয়াজ কুচি ও কাঁচামরিচ ফালি দিয়ে দিই। এরপর পেঁয়াজ কুচি বাদামি রঙের হলে একে একে সব মসলা দিয়ে দিই। মসলা কষানো হলে এতে লাউ কুচি দিয়ে দিই। ভালোভাবে নেড়ে মসলা লাউয়ের সঙ্গে মিশে যাওয়ার পর ঢাকনা দিয়ে ঢেকে জ্বাল কমিয়ে দিই। দশ মিনিট এভাবে রাখার পর ধনেপাতা দিয়ে নেড়ে দুই মিনিট পর নামিয়ে ফেলি। ৩.লাউ দিয়ে গরুর মাংস উপকরণ : একটি মাঝারি লাউয়ের অর্ধেক, গরুর মাংস ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদা বাটা ১ চা-চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল-চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া ২ চা-চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা-চামচ, তেজপাতা ১টি, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা-চামচ, কাঁচামরিচ আস্ত ৪-৫টি, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, তেল ও পানি পরিমাণমত। প্রস্তুত প্রণালী : প্রথমে লাউয়ের খোসা ছাড়িয়ে ধুয়ে টুকরো করে কেটে নিন। গরুর মাংস ভালো করে ধুয়ে সব উপকরণ দিয়ে মাখিয়ে চুলায় দিয়ে কষিয়ে নিন। এরপর পানি দিয়ে ভুনা ভুনা করে রান্না করুন। ভুনা মাংসে টুকরো করা লাউ দিয়ে আরও কিছুক্ষণ ঢেকে রান্না করুন। লাউ-মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে তাতে জিরা গুঁড়া, কাঁচামরিচ দিয়ে দিন। এরপর ধনেপাতা দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

১ টি উত্তর লুকিয়ে রাখা হয়েছে

Rakib ahmed

গুণী

Good for nothing

লাউপাতায় চিংড়ি চচ্চড়ি,লাউ এর সিলকা ভর্তা,লাউপাতায় ইলিশ,লাউ ও গাজরের পায়েস,লাবড়া,লাউপাতার ভর্তা,লাউয়ের খাট্টা

অথবা,