Preview
প্রশ্ন করুন
রিলেটেড কিছু বিষয়

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

টপিক বাছাই করুন

+ আরও

( ৮ টি উত্তর আছে )

( ৩,৩৬৭ বার দেখা হয়েছে)

আরাফাত রহমান  www.bigganblog.org

বিশারদ

যেকোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের মতামত ও দাবীদাওয়া সংঘবদ্ধভাবে জানানোই হলো ছাত্র রাজনীতি। এই ছাত্ররাজনীতি অনুপস্থিত বলেই সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা বিভিন্ন সুযোগসুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়। ক্ষমতালোভী কতিপয় সন্ত্রাসীরা নিজেদের স্বার্থে যে টেন্ডারবাজী, হলদখল, শোডাউন করে ওটাকে ছাত্ররাজনীতি বলতে রাজী নই আমি।

Opu  Stop Running Scared...Stupid!!!

বিশারদ

রাজনীতি থাকবে না কেন !!! কিন্তু সেই রাজনীতি যেন হল দখল আর tander বাজির রাজনীতি না হয়...

শিহাব  Shajib

গুরু

শিক্ষা প্রতিষ্টানে ছাত্র রাজনীতির প্রয়োজনীতা নিয়ে কথা বলার আগে আমি বলতে চাই- অতীতে ছাত্র রাজনীতি কে এবং করা করতো। অতীতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র রাজনীতি করত বিশ্ববিদ্যালয়ের সব থেকে ভালো ছাত্ররা। আরও একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আছে ছাত্র রাজনীতির এবং তা হচ্ছে ছাত্র রাজনীতি শুরু হয়েছিলো ছাত্রদের মধ্যে নেতৃত্বের গুণাবলী গড়ে তোলার জন্য। কিন্তু এখন যারা ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত তারা এখন এই ২টা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় থেকে অনেক দূরে চলে। তাই যদি এই ২টা বিষয় ঠিক রেখে শিক্ষা প্রতিষ্টানে ছাত্র রাজনীতি করা হয় তাহলে অবশ্যই ছাত্র রাজনীতি ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে পরিচালিত করবে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনীতি কখনই কাম্য নয়। কারণ আমাদের দেশের রাজনীতি মানেই এখন টেন্ডারবাজী। টেন্ডারবাজীই যে রাজনীতির মূলনীতি সেই নীতি পরিহার করায় উচিত।

মারগুব  স্বপ্নগুলি পূরণ করছি, একটি একটি করে..

মহাগুরু

ছাত্ররা রাজনীতি নিয়ে জানতে পারে কিন্তু তারা যদি রাজনীতি করে তাহলে পড়াশোনা করবেটা কে? ইংলিশ এ একটা কথা আছে - "Power corrupts absolute power corrupts absolutely" - আমাদের দেশে ছাত্র রাজনীতি করলে ক্ষমতা পাওয়া যে - যেই কারনে হল দখল আর টেন্ডার বাজি হয় | USA এর ছাত্র রাজনীতির মডেল তা অনেক ভালো এই ক্ষেত্রে |

সাদ হাম্মাদি  সাংবাদিক, পরামর্শক - মতামত মূলত ব্যক্তিগত

পন্ডিত

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র রাজনীতি ততোটাই যৌক্তিক যতটুকু একজন ছাত্র বা ছাত্রীর মেধা বিকাশে সাহায্য করে এবং রাজনীতি বিষয়ক বুদ্ধিমত্তার এবং জ্ঞানের ব্যাপ্তি ঘটায়। শুধু বাংলাদেশেই নয়, ছাত্র রাজনীতি অনেক বড় বড় দেশের বিশ্ববিদ্যালয়েই প্রচলিত আছে, কিন্তু তার ব্যবহার ও প্রভাব শুধু মাত্র প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার মধ্যেই সীমিত রাখা হয়েছে। অবশ্যই তার কোনো কারণ আছে। রাজনীতি দেশ পর্যালোচনা এবং সমাজ ব্যবস্থাপনার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত এবং সে জন্যই রাজনীতির সঠিক ব্যবহার বোঝাটা গুরত্বপূর্ণ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র রাজনীতি হয় সাধারনত ছাত্র/ছাত্রীদের সুবিধা, অসুবিধা এবং প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থাপনা সমালোচনার মধ্য দিয়ে। এর সাথে কোনো ভাবেই জাতীয় পর্যায়ের রাজনীতির বা রাজনৈতিক দলের কোনো সম্পর্ক সাধারণত থাকে না। আমি ছাত্র রাজনীতি ততটুকুই সমর্থন করি যতটুকু জ্ঞান চর্চা এবং শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে প্রাসঙ্গিক।

হাসিব মামুন তুষার  আমি অনেক দুষ্টু ।। ।। ।।

জ্ঞানী

ছাত্ররাজনীতি অবশ্যই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে থাকবে। তবে সেটা যেন শুধু লেজুড়বৃত্তি , টেণ্ডারবাজি আর অস্ত্রের খেলা না হয়। সরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে ছাত্ররাজনীতি হতে দূরে রাখা অসম্ভব। এটাকে মেনে নিয়েই এগোতে হবে।

২ টি উত্তর লুকিয়ে রাখা হয়েছে

মনপুরা

পন্ডিত

আমি সহজ সরল মনে নেইকো কোন গরল

ছাত্র রাজনীতির প্রয়োজন আছে তবে রাজনীতি হবে ক্লাসের উন্নয়ন নিয়ে, বির্তক প্রতিযোগীতায় সর্বশেষ বিদ্যাপীঠের উন্নয়ন নিয়ে।দেশের বিদ্যাপীঠ গুলোর ঐতিহ্য ধংস করার জন্য নয়।

Saeed Hasan

জ্ঞানী

লং জারনি বেগিন্স উইথ সিংগেল স্তেপ...।

রাজনীতি ছাত্র রা করবনা তো ক করব? অবস্যই যুক্তি যুক্ত ... ওদের k প্রশিক্ষণ দেয়া উচিত.. মারামারি আর দখলবাজি এই দুই টপিকস এ....ইনসাল্লাহ দেশ দ্রুত উন্নতি করবে ...

অথবা,